Portfolio

HAJA TOISHA..my painting..

“Haja Toisha” is a small stream beside our village. When I was small I used to there for fishing with my parents, at adolescent period I spent lots of time with friends, and now to watch its beauty. This little stream is one of the sources of livelihood of the village people. Some goes there for catching fishes, some to collect fire woods or vegetables.

This stream is favorite to me. While visiting I took many important decisions of my life here. Light and shadow of this stream is one part of my soul, it supports me to forget sorrows, and enjoy the happy moments.

The shadow is my existing life and the light is my future hope18367_1235504962427_8153110_n

18367_1235505042429_5987399_n

18367_1235505122431_8052309_n

18367_1235508522516_1019647_n

18367_1235508562517_5849484_n

18367_1235508602518_7487620_n

374874_2442148527762_796300982_n

375172_2442151767843_1792927800_n

375347_2442150927822_1206599242_n

375526_2442150567813_587853801_n

375535_2442152127852_375381884_n

376009_2442146447710_1562620584_n

376096_2442150407809_1549757383_n

378449_2442153207879_640060660_n

378780_2442147167728_313800633_n

378882_2442146087701_398233346_n

380379_2442146207704_793743417_n

380846_2442147687741_334351328_n

381956_2442146367708_2083795144_n

383063_2442149687791_57943406_n

384383_2442149287781_920672209_n

384870_2442149007774_1584224574_n

384892_2442152527862_1482468241_n

385524_2442148687766_1132526169_n

385827_2442150167803_2093872274_n

386560_2442151407834_1471044931_n

386689_2442153567888_1681304831_n

387526_2442145727692_1474063635_n

388221_2442152767868_2092223162_n

390112_2442149527787_1162712747_n

390645_2442147487736_641735044_n

392120_2442148127752_669942264_n

392279_2442146807719_1408201114_n

1915466_1168609690087_2805859_n

1915466_1168609770089_2787289_n

1915466_1168609810090_2589653_n

1915466_1168609850091_7677059_n

1915466_1168611490132_6541719_n

1915466_1168611530133_3539618_n

11024720_10204728306062199_8471580956349613087_n

.খেলুরাম খেলে যা ..দেখুরাম দেখে যা

পারফরমেন্স এর শিরোনাম :এইটি একটি খেলা , মনে কিছু নিবেন না ! কনসেপ্ট /আখ্যা : আমরা ঐতিয্য প্রিয় জাতি ,ঐতিয্য কে ধারণ ও বহন করতে আমরা বদ্ধ পরিকর /আমাদের দুই প্রধান রাজনৈতিক দলের ও রয়েছে পারিবারিক বর্ণিল ঐতিয্য /দুই পরিবারের রাজনৈতিক মতাদর্শেই আমদের মতাদর্শ !দুই পরিবারের কাদা ছুরা-ছুরি খেলা দেখতে দেখতে সমাজ কিংবা অন্যান্য পরিবার এর কথা মনেই থাকেনা ! বাংলাদেশ উত্সব মুখর জাতি ও বটে ! আমরা উত্সব মুখর পরিবেশে দুই পরিবার কে ভোট দিই,উত্সবমুখর পরিবেশে সমাবেশ-মহাসমাবেশ করি ,উত্সবমুখর পরিবেশে গাড়ি ,বাড়ি দোকান-পাত ভাংচুর করি /ক্রসফায়ার উত্সব করে শত শত মানুস হত্যা করি খেলার ছলেই …খেলুরাম খেলে যা ..দেখুরাম দেখে যা …হা হা হা …. উপকরণ : দুইটি পিং-পং বল ,একটি পাকা কলা ,কিছু ফুল ,একটি থালা / সময় :১০ মিনিট . স্থান :বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ,ঢাকা তারিখ : পহেলাবৈশাখ ১৪১৯ শিল্পী : জয় দেব রোয়াজা484213_3459123951512_500783943_n

484213_3459124031514_1568969146_n

484213_3459124071515_1790068307_n

484213_3459124111516_33573715_n

484213_3459124191518_966922340_n

524112_3219310116316_1114161884_n

530025_3219309796308_911527697_n

533304_3219312356372_1320645473_n

534308_3459128311621_1870276385_n

534308_3459128351622_651907447_n

536526_3219312956387_1303528585_n

549249_3219312636379_1572176888_n

574759_3219310516326_1717003810_n

578577_3219311716356_866189557_n

581139_3219311036339_2138950541_n

Reflection of my RUNNING ROOT

visual reflections on my life…..!!
গাছের মূল ও শেকড় মাটির উপর গাছটিকে শক্ত করে শুধু দাড় করিয়েই রাখে না, সঠিক খাদ্য দ্রব্য খনিজ সরবরাহ করে গাছটিকে পুর্ণ বি্কাশের সুযোগ করে দেয়। তাই এই শেকড় গাছের একটি অন্যতম মূল অংশ। মানুষের ক্ষেত্রেও এমন শেকড় রয়েছে, যা তার অতীত ইতিহাস। এই অতীত ইতিহাসের ধারাবাহিকতায় মানুষের বিকাশ হয়েছে। স্থানবেধে ভাষা, ধর্ম, সংস্কৃতি, বিভিন্ন পালা-পার্বনের বিকাশ ভিন্ন স্থানে ভিন্ন রুপে ধারন করেছে। এই ভিন্নতা এসেছে স্থানীয় সেই মাটির ভুসংস্কৃতির থেকে। যাদেরকে আমরা ভুমি পুত্র বলি(son of soil), তারা যে মাটিতে জন্মেছে সেই মাটির ভুসংস্কৃতির সঙ্গে আস্তে আস্তে একটা গভীর আত্মীক সম্পর্ক গড়ে তুলেছে স্বতঃস্ফুর্ত ভাবে- যা তার সেই অদৃশ্য শেকড়। এই শেকড়কে আকড়িয়েই সামনে চলা শুরু হয়। এই শেকড়কে আমরা উপড়িয়ে ফেলছি। পৃথিবী ব্যাপী বিশ্বায়নের নামে এই প্রকৃয়া চলছে। এর ফলশ্রুতিতে বৈচিত্রময় ভাষা সংস্কৃতি বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে প্রতিমুহুর্তে। একটি ভাষা সংস্কৃতি গড়ে ওঠে স্থানীয় ভুপ্রকৃতির সঙ্গে সামজ্ঞস্য রেখে হাজার হাজার বছরের ধারাবাহিকতায়। তাই স্থানীয় ভুসংস্কৃতি একটি অমূল্য সম্পদ।আমাদের মূল সংস্কৃতিতে স্বশিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার প্রবণাতা বহুকাল আগের থেকেই প্রচলিত ছিল। তার প্রমান লালন, রবীন্দ্রনাথ, নজরুল। এরা কেউই প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় শিক্ষিত না হয়েও শিক্ষার সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছে সমাজ কে যা দিয়েছেন তা আজও আমাদের অবলম্বন। লালনের গানে আমরা মানবতার জয়গানই দেখতে পাই। তিনি হিন্দু না মুসলমান সেই ধর্মীয় পরিচয়টুকু কোথাও দেননি। আজ এত বছর পরে এসেও সমাজে ব্যক্তির পরিচয় নির্ধারিত হচ্ছে ধর্মী দিয়ে। আজ আমরা ব্যক্তিগত বিশ্বাস নিয়ে নিজেকে রাঙ্গিয়ে তুলছি আর ভিন্ন বিশ্বাসী লোকদের রক্তাত্ব করছি। এটি কি ধরনের মানবতার চর্চা চলছে?

আমাদেরকে মূলের কাছে যেতে হবে, যে শেকড়ে মিলবে মুক্তি, বিশ্ব শান্তি।
আমাদের কে শিকড়েই ফিরে যেতে হবে নিজস্ব মর্যাদা আর অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্য।189053_1690739823014_3220548_n

189649_1690741583058_290097_n

195883_1690741063045_5196936_n

196723_1690738982993_1217550_n

198046_1690738262975_1338378_n

198207_1690744903141_497597_n

199111_1690744583133_1251569_n

199437_1690744063120_2566351_n

200453_1690743703111_6288265_n

200559_1690742023069_2194846_n

226519_1780049015688_6166520_n

228594_1780049255694_6918406_n

230274_1780048735681_8199878_n

230424_1780048895685_1787294_n

230639_1780048535676_3894009_n

741232_10203185882742580_3650762642751858146_o

1462704_10203658337953665_3995125242180337041_o

1956922_10204486290931972_6266770277390949579_o

10269182_10203185879822507_7077783208306176755_o

10272534_10203185886542675_4347723832494092178_o

10275480_10204486291291981_1722657218414793787_o

10317797_10203013911283401_4568467688324803797_o

10344270_10203185879742505_7920854864899026804_o

10363419_10203013911083396_2654118724548729272_o

10483309_10203013909843365_4749303277602600900_o

10498456_10203013910083371_6677598941394519477_o

10499375_10203185884942635_2989680903983075639_o

10505049_10203185887862708_2184345004134038869_o

10506611_10203185879302494_421191257449083560_o

10506916_10203185883062588_5778942628061672348_o

10517929_10203185885662653_524603828981221353_o

10549984_10203013910323377_8876604488945270397_o

10556926_10203185882302569_2167128813325026529_o

10571918_10203185881902559_4515562738365173785_o

10575403_10203185881702554_4392885411302770141_o

10620482_10204486292532012_6889754162790234422_o

10633946_10203658339153695_7257076972003541642_o

10683469_10203658339833712_7840191814129080956_o

10835141_10204486291691991_5378864170851552901_o

10929106_10204486292132002_162655511085234564_o

ফাদ :The trap.

ফাদ :- In my childhood I loved to make the traps for catching birds. To catch the small bird (badui) using those traps to the same aged boy was honorable. There was a competition among the boys to make traps more beautiful and attractive for the birds. To place the trap in the best place of the jungle was one kind of credit. Because without any experience it was very hard to attract the birds to the traps. By the time me and my play pals passed the childhood, youth and we are almost middle aged. Now meanwhile I can see that all of my naughty, brave hunter childhood friends became as hunt this time . The states policy, the social cultural depreciation made us the target of hunt directly or indirectly .So we are all trapped oddly by newer trick and deception every each day..
joy deb roaja

chhoto বেলায় আমার সব চেয়ে প্রিয় খেলা ছিল বিভিন্ন ধরনের পাখি ধরার ফাদ বানানো এবং সেই ফাদ পেতে পাখি শিকার ছিল অনেকটা নেশার মতো / সেই সময় সম বয়েসী ছেলেদের মধ্যে যার ফাদার সংখ্যা বেশি তার মর্যাদা ছিল অন্যরকম পাখি দের আকৃষ্ট করার জন্য কে কত রকম ভাবে সুন্দর ফাদ বানাতে পারে তার একটা প্রতিযোগিতা ছিল ..আর বনে সবচেয়ে সেরা জায়গায় ফাদ বসানো ও ছিল কৃতিত্বের ব্যপার ..কারণ সুক্ষ বুদ্ধি ও অভিজ্ঞতা না থাকলে পাখিদের সহজে ফাঁদে ফেলা যেত না /সময়ের স্রোতে শৈশব কৈশোর পেরোয়া আমি ও আমার খেলার সাথীরা এখন মধ্যবয়েসি ../এই সময়ে এসে দেখি ছোট বেলার সেই দুরন্ত অসম সাহসী শিকারীর দোল এখন নিজেই অন্য দক্ষ শিকারীর ফাঁদে পরছে …/ রাষ্ট্র যন্ত্র , সামাজিক অবক্ষয় ,আমাদের কিচ্ছু আতেল নেতা প্রতিনিয়ত নুতুন নুতুন প্রলোভনে আকৃষ্ট করে আমাদের কে অদ্ভুত সব ফাঁদে আটকে ফেলছে …150462_4900951996312_43892926_n

314436_4900949956261_1287744854_n

384003_4900950916285_1219727023_n

384118_4900947756206_1749670947_n

392853_4900952836333_1232065721_n

418837_4900951196292_1656601875_n

481214_4900952316320_730853575_n

484772_4900953116340_1930668571_n

486399_4900951636303_1966354779_n

577143_4900947516200_1251624630_n

882937_4900953636353_1887362260_o

883795_4900950236268_786893840_o

Generation-wish-yelding tress and atomic tree..প্রজন্ম কল্পদ্রুম

The fighting of two political groups of INDIGENOUS over the peace pact of 1997 drives the young generation into destruction.By the name of peace pact the politicians played a special sabotage in front of the INDIGENOUS.So there is nothing like social consciousness in the thought,education,art and literature,sports of the new generation,instead they have terrorism,arms.kidnapping and killing.Inthe impassable and remot village of the hill tracks where there is notouch of modernity but the threatening of weapons.Surely the situation makes them introduced with weapons in their tender age.There is no yard or path of INDIGENOUS which is free from the footprint of well-trained army soldiers.As a result the new generation always carries a heavy weapon on their head which is destroying their tender sensibility.Will you think the way to get rid of the situation ?????????1913925_1153203544943_3536178_n

31253_1303246175915_281601_n

31253_1303246215916_6983946_n

67529_1491604204748_987220_n

67529_1491604244749_661257_n

73469_1491595924541_7548698_n

183319_1667880011533_4203837_n

183452_1667877531471_1449696_n

185812_1667878091485_2321058_n

188809_1667881051559_1995664_n

190628_1667878971507_7680514_n

197256_1667878691500_2755990_n

294060_2174664400826_1136934069_n

294183_2174664600831_1565343867_n

296013_2174663720809_1425885227_n

297845_2057900961813_2314159_n

305740_2174664040817_517828207_n

306425_2174663960815_1145795725_n

310693_2174663560805_524221068_n

311850_2057917842235_2118440_n

312810_2174663840812_1883519814_n

317086_2174664200821_1259745966_n

329095_2057900201794_2697630_o

330407_2057895441675_7738660_o

340879_2057895001664_7347302_o1913925_1153203544943_3536178_n

1913925_1153203584944_4100874_n

1913925_1153203624945_6671587_n

1913925_1153203664946_5594967_n

1913925_1153208225060_282370_n

1913925_1153208265061_6643584_n

1913925_1153217705297_1150588_n

মুখোশে ঢাকা মানুষ আমরা ……

মুখোশে ঢাকা মানুষ আমরা …… নিজকে ঢেকে রাখুন মুখোশের আড়ালে। এমনিতেই তো আমরা মুখোশ পরে থাকি। অন্তরে আছে সয়তানের বীজ, মুখোশ পরে থাকি সাধুর। কতজন আছি আমরা মুখোশহীন ? নিজের কাছে প্রশ্ন করেছি কখনো ? মুখোশ নিয়ে আমার ২০০৫ এ শ্রীলংকায় করা কাজ …